ইতিহাস

প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস

ব্রিটিশ বাংলায় যখন অত্র এলাকায় শিক্ষার হার ছিল অত্যান্ত নগন্য। তখন ১৯২০ সালে একজন উদ্যোগী মহান পুরুষের প্রচেষ্টায় কুষ্টিয়া প্রাগপুর মহাসড়কের পাশে তারাগুনিয়া এম.ই. স্কুলটি প্রতিষ্ঠা লাভ করে। দীর্ঘ চলার পথে ১৯৬৬ সালে বিদ্যালয় নিম্ন মাধ্যমিক শাখা অনুমোদন লাভ করে। ১৯৭০ সালে মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ উন্নীত হওয়ার পর ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বিদ্যালয়ের অনেক জিনিসপত্রের সহিত ইহার মুল্যবান দলিলপত্রও কাগজপত্র হানাদার পাক বাহিনী জালিয়ে দেয় এবং অতি বন্যায়ও কিছু ‍কিছু কাগজ পত্র বিনষ্ট হয়। স্বাধীনতার পর হতে অদ্যবধি বিদ্যালয়টি অত্র জেলার মধ্যে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেছে চলেছে। এই বিদ্যালয়ের অনেক কৃতি ছাত্র-ছাত্রী এদেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন পদে আসীন হয়ে কৃতিত্বের সহিত দায়িত্ব পালন করে বিদ্যালয়ের সুনাম বৃদ্ধি করে চলেছে। বিদ্যালয়টির ঈর্শ্বান্বীয় ফলাফল সকলকে অবাক করেছে। এই বিদ্যালয়ের জে.এস.সি. ও এস.এস.সি. পরীক্ষার ফলাফল বরাবরই অত্যন্ত ভাল। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সুযোগ্য আজীবন দাতা সদস্য জনাব আফাজ উদ্দিন আহমেদ ও প্রতিষ্ঠাতা মরহুম কাজিম উদ্দিন আহমেদ (সাবেক চেয়্যারম্যান, মথুরাপুর ইউ.পি) , অন্যান্য সদস্য ও সুদক্ষ শিক্ষক মন্ডলী  ও এলাকার সর্ব স্তরের মানুষের আন্তরিক প্রচেষ্টায় বিদ্যালয়টি ক্রমান্বয়ে আরো উন্নতি লাভ করেছে। তাছাড়া বিদ্যালয়টির প্রাকৃতিক পরিবেশ অবকাঠামো সীমানা প্রাচীর ইত্যাদি শিক্ষার্থী বান্ধব হওয়ায় দিন দিন বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিদ্যালয়টির এ ধারা অব্যহত থাকবে বলে সকলের আশাবাদ রয়েছে।